মহামায়ায় কায়াকিং

মহামায়ায় কায়াকিং

এই ট্যুর আমার কাছে স্মরনীয় হয়ে থাকবে। প্রথমবার কায়াকিং প্রথম প্রেমের মতো মনে হয়েছে।

কায়াক বোট নিয়ে শান্ত পানিতে ছপ ছপ আওয়াজ তুলে এগিয়ে যাচ্ছি। দুই পাশে টিলা। সূর্যের কিরণ পানিতে পরে কেমন একটা সোনালি আভা সৃষ্টি করেছে।

জীবন কখনো কখনো স্বপের মতো ধরা দেয়। আমার কাছে কায়াকিং এর সময়টুকু স্বপ্নের মতো মনে হয়েছে।
তাছাড়া মহামায়াতে ক্যাম্পেইনের সুযোগ রয়েছে।
প্রতি বৃহস্পতিবার আর শুক্রবার ক্যাম্পেইন হয়।খরচ জনপ্রতি ৫০০/=
এর মধ্যে আছে তাবু, হ্যামক, রাতের খাবার, বারবিকিউ, সকালের নাস্তা। ক্যাম্পেইন সন্ধ্যা ৭:০০ থেকে শুরু হয়।

যাওয়ার রুট:
আমরা প্রথমে ফেনী যাই স্টার লাইনে। ভাড়া ২৭০ টাকা। ফেনী চট্রগ্রামগমী লোকাল বাস আছে। মাহামায়া পর্যন্ত ৩০/৪০ টাকা নিবে। ওই জায়গার নাম ঠাকুরদিঘী। মহামায়া বললেই সবাই চিনবে।ফেরার সময় মহামায়া থেকে অনেক সময় ফেনীর বাস পাওয়া যায় না। ওখান থেকে বারৈয়ার হাট আসবেন বাসে। ভাড়া ১০ টাকা। বারৈয়ার হাটে বাস কাউন্টার আছে। শ্যামলী,হানিফ, ইউনিক, এনা সহ আরো কিছু বাস আছে। ভাড়া ৩৩০ টাকা।
ভেতরে প্রবেশ মূল্য ১০ টাকা।

কায়াকিং ঘন্টা ৩০০ টাকা। স্টুডেন্টদের জন্য ২০০ টাকা।

সবশেষে, ভাই দেশটা আমার আপনার। যত্রতত্র ময়লা ফেলে দেশটারে ময়লার স্তুপ বানানো বন্ধ করি।

ধন্যবাদ

Posted in General.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *